অনাহারীর অব্যক্ত যন্ত্রনা
       এম এ সালাম
🛐🛐🛐🛐    ০৭-০২-২০🛐🛐🛐🛐🛐🛐


অভাবির ঘরে জন্ম নেওয়ায়-
    ওর বুকে ভীষণ কষ্ট,
পেটটা ভরে চায় যে খেতে
   হউক  যত বাশি, পঁচা, নষ্ট।


একটু আধটু সুখের জন্য -
     যায় সিকদার বাড়ি,
কথায় কথায় বিবি সাহেবা
     মারে শুধু ঝাডি-বারি।


পান থেকে চুন খসে পরলে-
       দেয় যে  গায়ে ছ্যাঁকা,
ওদের দেখার কেউ নেই বন্ধু
     হায়! জীবনটা যে ফাকা।


বাবা -মায়ের সোনা মনিকে-
    একটু সুখের আশায়,
বুকে পাথর বেঁধে পাঠায়
   সাহেব বিবির বাসায়।


মনের মত কাজ না হলে-
   বিবি সাহেব করে বাড়াবাড়ি,
হাতের কাছে খুন্তি পাইলে
     ছ্যাকা দেয় তাড়াতাড়ি।


মুখ বুঁজেই সব সয়ে যায়-
    পেটে ক্ষুধার লাগি,
নেহার জীবনে ফুল ফুটে না
     সুখ যায় রে বাগি।
    
ভোরের পাখি জাগার আগে-
      খুব সকালে উঠে,
মালিকের বাসায় কাজে যায়
      বানায় আটার পিঠে।
    
একটু সুখের লাগিয়া নেহার-
      হায়!এতটুকু বাড়াবাড়ি,
কেমন করে ওর জীবনটাকে
      উজ্জ্বল করিবে তাড়াতাড়ি।