মানুষের ঘরের পাশে থাকা অন্য আর একটা ঘরে
মানুষ তার বিবেক,সততা,মূল্যবোধ রাখেযত্ন করে।
সেই ঘরের ভিত মানুষের বিশ্বাসের উপর দাঁড়িয়ে;
মানুষের বেঁচে থাকা  বিশ্বাস আর মূল্যবোধ নিয়ে।
বিশ্বাসের ঘর ভেঙে গেলে মানুষ,  মানুষ থাকে না;
চেনা-জানা লোকজন, হয়ে যায়  অজানা- অচেনা।
বিশ্বাসের ভিত নড়ে যদি,লজ্জায় লুকোয় মুখ নদী;
পাশে আর থাকে না স্বজন,বিশ্বাসের ঘর ভাঙে যদি।
বিশ্বাসেই  চাঁদ ওঠে, বিশ্বাসেই হাসে ফুলের বাগান;
বিশ্বাসবোধেই মানুষের রাগ-অনুরাগ,মান-অভিমান।
বিশ্বাস হারায়নি তাই নদী হেঁটে যায় সমুদ্রের দিকে;
বিশ্বাস হারালে পৃথিবীর সমস্ত রঙ  হয়ে যায় ফিকে।
বিশ্বাসে কবির হাতে শব্দলিপি,ভাব-ভাষা-ছন্দ আসে   বিশ্বাসেই অক্ষরমালা,সুর-সঙ্গীত, হৃদয়ের উচ্ছ্বাসে।
বিশ্বাসেই কবিতার জন্ম,অনুভবে থাকা ভালবাসা।
বিশ্বাসে জন্ম নেয় বোধ, ধ্বনি ময় জীবনের ভাষা!
                        --০--