হে রমণী, ক্ষুধা কী তোমার দেহের
না জঠরের ?
আমি যৌবনের ক্ষুধায় যৌবন
জঠরের ক্ষুধায় আহার দেবো ।


হে নারী,হৃদয়ে কী তোমার
ভালোবাসার উচ্ছাস ?
তুমি জানোনা !
যৌবনে যৌবন না ছুঁলে
ভালোবাসা গভীরতা পাবেনা ।


হে রমণী, তোমার দু'চোখে কী
মেঘের মেলা ?
আমাকে ছায়া দাও । বৃষ্টিতে ভিজাও ।
শেঁকড় জলে ডুবিয়ে দিচ্ছ না কেন ?