তব জয়ধ্বনি হোক, হে মহারানী রাজরাজেশ্বরী,
আমি চিত্রা আবেদনের ভৃত্য নই
আমি পুস্প দিয়ে আপনার বাগান সজ্জিত করিব না ।


আমি বরং আপনাকে দিয়েই আপনার বাগান সাজাবো
আমি আপনার শরীরের প্রাসাদে সমস্ত অলিগলি এখানে সেখানে নিভৃতে
যতো প্রকার প্রগাঢ় খনিজ সম্পদ আর সুগন্ধ আছে সেই সব ক্ষনন করে
আপনার বাগানের স্বর্ণচম্পকে প্রলেপ দেবো।


আমি আপনার ‘কবেকার অন্ধকার’ রেশমের মত কেশ গুচ্ছ নিয়ে
আপনার বাগানে
এমন এক নীহারিকাময় ঊর্ণাজাল সৃষ্টি করবো
যাতে প্রবেশ করলে আপনার রাজ্যের সমস্ত প্রজারা চিরদিন গুম হয়ে যায়!


আমি আপনার সিঁথির অগ্নিসম রক্তিম সিঁদুর দিয়ে
আপনার সাধের রক্ত করবীকে এমন অভিশপ্ত রক্তাক্ত
আর এমন ভয়াবহ উত্তপ্ত বিষাক্ত করে তুলবো
যেটাকে কেউ দেখা মাত্র ভস্মীভূত হয়!


আপনি আমাকে আপনার কর্মভীরু অলস কিঙ্কর ভেবে
চরমতম ভ্রান্তি করেছেন, হে আমার মহারানী রাজরাজেশ্বরী
[আপনাকে আমি অনেক অনেক দিন দেখি নি, তবু]
আপনি আমার শত সহস্র লক্ষ প্রণাম গ্রহণ করুন!