ইচ্ছে করে
মুক্ত হয়ে ভূলোক ছেড়ে
হাওয়ায় ভাসি
গগন ফুঁড়ে
ঊর্ধ্ব-লোকে
আরশ ‍চুমি।


ইচ্ছে আমার
যাই হারিয়ে পেখম মেলে
সেই সুদূরে
আকাশ জমিন
যে দিগন্তে
যায় মিলিয়ে।


ইচ্ছে হচ্ছে
এক নিমেষেই যাই পেরিয়ে
সাগর নদী
কল্পলোকের
পাহাড় চূড়ায়
আসন গাড়ি।


‌ইচ্ছে জাগে
সময়টাকে যেমন খুশি
বন্দী করি
নিজের করে
নিজের মত
ভুবন গড়ি।


ইচ্ছে আমার
সাত আসমানের উপর হতে
ভূপৃষ্ঠে লাফিয়ে পড়ি
সাত সমুদ্রের
তলদেশে ছবির মত
মহল গড়ি।


ইচ্ছে করে
এক পলকেই আকাশ ভ্রমণ
সাঙ্গ করি
দৃষ্টি-সীমার বাইরে গিয়ে
লোক-চিন্তনে
প্রলয় তুলি।


ইচ্ছে আমার
সোনার কাঠি রূপার কাঠি
পাল্টে যাক
নতুন রূপে নতুন বেশে
জীবন প্রদীপ
জ্বলে উঠুক।


ইচ্ছে জাগে
রঙ-তুলিতে প্রাণের ছোঁয়া
লাগিয়ে দিতে
আমার যত ইচ্ছেগুলো
প্রকৃতি পট
এঁকে নিতে।


ইচ্ছে যত
দিচ্ছে হানা
নয়ন মুদে শয্যার উপর
স্বপ্নচারী স্বপ্ন নিয়ে
বিশ্ব-লোকে
ছড়িয়ে পড়।


ফিরোজ সিদ্ধেশ্বরী, ৩০/১২/২০১৪