পল্লীমা, তোমার ওই সবুজ আঁচল
বিস্তৃর্ণ দিগন্তে আমি আনমনে চাই,
চেয়ে দেখি, তুমি চেয়ে আছ অবিচল।
অনাবিল প্রেমসুধা তোমা হতে পাই।
সবুজ শড়িতে কত ফুল ফুল আঁকা,
বুরুজের মতো দেখি প্রজাপতি রাখা।


তুমি হেঁটে চলো কোনো সতীর মতন,
সারল্যের নমনীয়া বুকে ছোট নদী
স্নেহের বারিতে তুমি সুখ-আয়তন,
ভালোবেসে ডেকো খুব যেন নিরবধি।
তোমার কোলে শুয়ে মরি আহা সুখে!
সবুজ ছায়ায় ঠিক তা স্বর্গ সম্মুখে।


পল্লীমা, তোমার দিনগুলো মনে পড়ে
সকালে যখন উষা ওঠে পুবাকাশে
তুমি যেন লাল টিপ কপালেতে ধরে
সধবা মায়ের মতো সন্তানের পাশে
বয়ে তুমি সমীরণে সোহাগ জড়াও,
কত জ্বলাতন করি সহে চলো তাও!
(সংক্ষেপিত)


১০ জুন, ২০২১ খ্রি:
কেরানীগঞ্জ, ঢাকা