(গতকাল রাতে ইন্টারনেট কানেকশন ছিন্ন হয়ে যাওয়ার কারণে প্রকাশ দিতে পারি নাই। সেজন্য আন্তরিকভাবে দুঃখিত)


(বাংলাদেশের ক্রিকেট দলের প্রতি নিবেদিত লেখা)
“ধুমাধার”


বাঙলার উত্থানে জয় জয় জয়াকার
আশিষেতে মাখি তোহে, বজ্রের
হুঙ্কার।
ব্যাটে বলে ছয়লাপ ছক্কার হক্কাতে
হাহাকারে কাঁদে দিশা, বিরাটের
মক্কাতে।
বাঙালির বীণে ধরা জেগে ওঠে বিশ্ব
ধুয়া তুলে ধুমাধার , চলিতেছে
অশ্ব।
ক্ষুরে ওঠা ধুলি কণা, ধরণীর প্রান্তরে
দুই হাত করি জোড়, রাখি মোর
অন্তরে।


“বাংলার বেণু”


বাংলার বেণু বাজিছে হৃদয়; ধ্বনি বহে গর্জনে
নীববেতে সে তো নাই, চাহে ধরা অর্জনে।
দশ দিশা কাঁপে ওরে থরহরি কম্পনে
ভূজে ধরা মাতঙ্গ, শক্তির সনে
মনে।
বলিদান চাহে মন দিতে পারি পদতলে
হীন নহি হৃদয়েতে; স্থলে কী বা বায় জলে।
প্রশান্ত বায়ু বহে হৃদয়ত কল্লোল
তরু লতা ভূমি সখা, মৃদঙ্গ
হিল্লোল।
নদী বহে নিরবধি কলো কলো গতি ধায়
সমুদ্র হেথা চূমে স্নিগ্ধ সে অতিকার।
মানবতা গানে অলি ভ্রমরের গুঞ্জনে
মেতে উঠি মন প্রাণ, ভালোবাসা প্রীতি
সনে।
মাতামহী দুলালী সে মমতার আঁকরেতে
জাত পাতে ভুলে মোরা; হাতে হাত ধরা হাতে।
জীবনের জয়োগানে লালিত্যে সমাহিত
বন্দনা করি প্রাণ, ক্ষুধা হয়
প্রশমিত।
হরিতের দেশে সোনা মাঠে মাঠে দোল খায়
সোনালী সে রবি কর; মধু তারি দিয়ে যায়।
গর্বিত জাতি মোরা ভাষা ধরি বক্ষে
কুটিলতা কেহ যদি; পাবে নাতো
রক্ষে।
জোড় করে স্তুতি গাহি; স্বর্গ সে ভূমি মাতা
আজি প্রাণ গাহি মাগো, স্বপ্নের
ইতিকথা।


(আমার লেখা একটি ইংরেজি কবিতা অনুবাদ সহকারে)
“She was my only one”


She was breezy light-hearted
I perplexed she squeezed me;
In a hush she came out of her veils
her tress was so nice and brown nails
Applause and genuflect
She came into my dream.


I pretend to be steadfast though
heart jumpstarts fash in awe.
Percolating my heart
i took her in my home.
Days gone; now in mine loose bone
Ached much in sigh
alone.
She was my only one.


(অনুবাদিত বাংলা লেখাটি)
“পরমো ধন”


চপলা হিরণী তাহে হৃদয় সরল
নমিল আমারে সঁপি দেহ মন প্রাণ
স্বপ্নালু মোহময়ী খুলে অবগুন্ঠন
স্তব্ধ সে হিয়া মোর প্রেমের সে দোল।
অপরূপ কেশরাশি বাদামী নখর
আবরিল মোহে হৃদয়েতে
মোর।
অবিচল রহিলাম ভ্রমিতে তাহারে
ঝলকে ঝলকে ওঠে হৃদয়ের দ্বারে
প্রেমের সে বান নারি রুধিবারে।
আনি নিজ গৃহে মম শুদ্ধতা হৃদে
মন আর আত্মায় মুক্তির
দোর।
আজি প্রাণ নিভু নিভু জড়তার দ্বারে
ভেসে যায় মন প্রাণ তাহারি বিহনে।
হতাশার শ্বাস ফেলি বিজনো কাননে
আছিলো সে পরমো ধন;
মোর জীবনো
আননে।