মানব জীবন মহামুল্য বুঝতে পারলেন যিনি,
  অর্থের মুখে নিজের জীবন বিলিয়ে দেন না তিনি।
  যিনি নিরহংকারী ব্যাক্তিত্ব আর জীবন পথে সৎ,
  তাঁরি কাছে পায় যে মানুষ, সরল সোজা পথ।


   ভুলের পথে কখনও যাদের চায় না যেতে মন,
  স্বর্গীয় সুখ তাদের কাছে থাকে সর্বক্ষণ।
  সৎ মানুষই দেব তুল্য পুজ্য সর্বজনে,
  তাদের মতো জীবন যেন গড়ে প্রতি জনে।


  সুখ নামেরই ছোট্ট পাখি ধরতে যারা চান,
  পরিশ্রমের প্রাপ্য দিয়ে জীবন গড়ে যান।
  লোক ঠকিয়ে, দেশ ঠকিয়ে, অর্থ করলে দান,
  পুণ্যের নামে গড়বে শুধু, শূন্য অবদান।


টাকার পাহাড় গড়ছে খেলে রক্ত চুষা খেলা,
ভাবলনা সে, একদিন যে তার, ফুরিয়ে যাবে বেলা।
সব সম্পদের একাই হিসাব দিতে হবে তার,
স্ত্রী-পুত্র কেউ হবে না তার জামিনের ধার।


                     ----সমাপ্ত----
                   ( রচনাকালঃ- ২২/০৮/১৯৮৪)