উদাসী বনের পথের ধারে যে ফুল ফুটিল
হায়
যে ফুল গন্ধ বিলায়ে তব
ঝিলমিলি সন্ধ্যায়
চোখের পলকে পলক এড়াল সে যে বড়
দুখে দুঃখী
নিজের দুঃখ...
লুকায়ে আড়ালে অন্যরে করিল সুখি!
তাহার সে বেদন ওড়ায় কেতন
অজানা পথের ধারে
দোয়েল কোয়েল শোনিল কিনা দেখিল
কিনা তারে
গোলাপেরে বড় ভালোবাসে গেয়ে যায়
তার গান
তাহার রূপ ধূলায় জড়ায়ে বুকেতে বিষের
বাণ!
পূজার বেদিতে শত কোলাহলে কত
যে ফুলের মালা
তাহার দেহখানি মাটিতে মিশায়ে জুড়াল
মনের জ্বালা
প্রিয়ার খোপাতে বড়
আয়েশে রজনী গন্ধা ফুটে
তাহার পাপড়ি গোধূলীর ছায়ে নাচিল
পশুর ঠোটে!
সে তো নয় কসমস রজনী গন্ধা জুঁই
চামেলী বকুল
কোন সে পথিক
পথে মাঝে তারি লাগি হবে আকুল
যদি কোন প্রাতে বড় ভুল করে হয়
গো পথিক ব্যকুল
সে লাজে বলে দেখোনা আমায়
আমি যে বনফুল।