আমার ক্ষিতির ঘর            হিম নীল চরে
ভেরা ফাঁকে সোনা রূপো     ঘুম লহে কেঁড়ে
দুর্গম নিদে মঞ্জুল              আক্ষা যেথা নিশা
জননী করাল মুখে             দেহে মোর ঠাশা
নিদ জেগে যাহি ওগো         সাঙ্গোপাঙ্গ লহে
মুখে দিয়ে জল-পান্তা          পুঞ্জ হৃদ বহে
সারা দিন তট কুলে            সবে হেলে খেলে
সন্ধ্যা হলে ঘরে ফিরি          পদ্ম-ছড়া বলে


ধুলো বালি গায়ে নিয়ে         আসি যেথা বাড়ী
মায়ের লাগি শঙ্কিত             সাঝেঁ লুকোচুরি
ত্যাঁদড় বিনু কাটেনি            মোর ছেলে বেলা
নির্ঝরিণী কুলে কুলে           আক্ষু করি খেলা
ছেলে বেলা রঙ্গ-গঙ্গা          চঙ্গ রক্ত কমল
নেহি কোনো দ্বিষৎ ভবে       যাতনা অনল
fb: [email protected]