রানাঘাটের গল্পটি হয়নি বলা-
না বলা কথার পৌরাণিক ইতিহাস,
কবিতার পরতে কাঁধে ঝুলানো ব্যাগে,
মৌনধ্যানে উঁকি দেয়, ব'লে উঠার প্রত্যয়ে।
ষ্টেশনের পূর্ব  পাশের পোড়া কাঠের বেঞ্চি,
বিভু দা'র দোকানের রঙ চা, পুরোনো খবরের কাগজ,
ষ্টেশন মাষ্টারের কড়া চাহনি, রানু মন্ডলের লয় বিহীন গান,
রিক্সাওয়ালার হাঁকডাক, গন্তব্যহীন পথিক,
অপেক্ষমান ট্রেন, নির্জন-কোলাহল,
অতঃপর ইন্দুবালা এবং শেষ বিকেলের ট্রেন
অখ্যাত এক গাঁয়ের কবিকে জানায় নিমন্ত্রণ।
ইন্দুবালার গানের মাষ্টারি এবং কবির জায়গীর মাষ্টারী  
বড়ই বেমানান কলকাতা শহরে!
রানাঘাট মিশন স্কুলের কড়া শাসন,
উন্মুক্ত আকাশে এক ফালি চাঁদ,
গির্জার রাস্তায় হলুদ খামে একজন,
রাত জেগে পড়া প্রেরকের নাম,
নেয়নি মেনে কলকাতা।
দীর্ঘদিন বিরতিহীন-
রানাঘাট ষ্টেশন, এক কাপ চা, ভাঙা বেঞ্চি
শেষ বিকেলের ট্রেন-
এবং  ইন্দুবালা ও কবি
নিত্য পাশাপাশি বেগুপাড়ার পথে।


আগস্ট ৭, ২০২১
সিলভার স্প্রিং