_অনন্ত_এক_রাত্রি_


রাত্রিকালের যাত্রী আমি তিমিরে মেশানো অনন্তে অভ্যাসী
ওই ক্ষনিকের তরে,জরাজীর্ণ-জ্বরের মাঝেও শুন্য অভিলাষী।।


অনীহার ত্রাসে ভুগে ক্রমাগত নীহারিকা মাঝে খুঁজে ফিরি পরিচয়
নিশ্চলতার নেশায় মজি,অস্তাচলের সন্ধিক্ষণে আমার অরুনোদয়।।


বুদ্ধির ভিড়ে ঠাসা চাহিদার নীড়ে দিনের শেষে ওষ্ঠাগত প্রাণ
বিভাবরী যেন আর এক পৃথিবী যেখানে পৌঁছে আমার পরিত্রাণ।।


চেতনার পারে পেতে অচেনাকে,আমি চিরকালই যাত্রী
যাত্রা ফুরাতো দ্রুতই, পেলে বৃষ্টি মুখর অনন্ত এক রাত্রি।।