সুহেল ইবনে ইসহাক সিলেট জেলার বিয়ানীবাজার উপজেলার ঐতিহ্যবাহী ঘুঙ্গাদিয়া গ্রামের এক সমভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন Iসুহেল ইবনে ইসহাকের পিতার নাম মোহাম্মদ ইসহাক আলী ও মাতার নাম মরহুমা সায়রা বেগম I স্ত্রী মাহবুবা আহমেদ, পুত্র সাহেল আহমেদ রিফাত ও কন্যা মাহফুজা আহমেদকে নিয়ে তিনির একটি সুখী পরিবার I তিনি একইসাথে একজন লেখক, কলামিস্ট এবং কবি I ফাইনান্স ও ব্যাংকিং-এর উপর এমবিএ করেছেন সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি থেকে I ব্রিটিশ বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল একাডেমি (বিবিআইএ) এর সিনিয়র শিক্ষক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন ২০০২-২০০৫ সাল। পরবর্তীতে ২০০৫-২০১৪ সালে তিনি যমুনা ব্যাংকে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৪ সালে পরিবার সহ তিনি কানাডার টরন্টোতে অভিবাসন করেন। তিনি বিভিন্ন দৈনিক, সাপ্তাহিক,মাসিক পত্রিকা, সংবাদপত্র ও বিভিন্ন ব্লগে কবিতা, কলাম, আর্টিকেল, গীতিকবিতা ইত্যাদি লিখে আসছেন।স্কুল জীবন থেকেই সাহিত্যের প্রতি  ছিল দারুন আগ্রহ।কবিতা ,গল্প, উপন্যাস হাতের কাছে যা পেতেন তা পড়ে নিতেন সাগ্রহে I আর তখন থেকেই তিনি কবিতার প্রতি এক ধরনের মোহন অনুভব করেন এবং তা থেকে কবিতা লেখার প্রেরণা Iশৈশব কাল থেকেই প্রকৃতির প্রতি উনার প্রগাঢ় টান ও আগ্রহ ছিল I সমাজের দুঃস্থ, অবহেলিত মানুষের দুঃখ দুর্দশা কবিকে ব্যথিত করে I এই অনুভূতি কবিকে সমাজ সেবা , মানব সেবায় আত্মনিয়োগ করতে প্রেরণা যোগিয়েছে I
২০০১ সালে তিনি “অন্বেষা সাহিত্য সংসদ” প্রতিষ্ঠা করেন। পরবর্তীতে ২০১৫ সালে তিনি “অন্বেষা সাহিত্য সংসদ কানাডা” প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি রোটারি ইন্টারন্যাশনালের সাথেও জড়িত ছিলেন এবং  “রোটারি ক্লাব অফ বিয়ানীবাজারের” প্রেসিডেন্ট হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন। নিস্তব্দ-শান্ত পরিবেশে আপন খেয়ালে থাকতে খুব ভালবাসতেন I শেখা ও সাধনা হতে স্বয়ং বিচ্চ্যুত না হওয়াটাই কবি সুহেল ইবনে ইসহাকের অভিলাষ I
প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থঃ "হৃদয়ে আঁকা ছবি"(১৯৯৮ সাল)
অপ্রকাশিত উপন্যাসঃ “সবুজ সন্তান”(১৯৯৭ সাল)
সম্পাদিত গ্রন্থঃ লিটল ম্যাগাজিন "আয়না"(১৯৯৭সাল)
অপ্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ :“নিসঙ্গতার অবসান”, “নিঃশব্দের নিঃশ্বাস”
অপ্রকাশিত গীতি কাব্য : “জীবন নদের ঢেউ”
অপ্রকাশিত প্রবন্ধ গ্রন্থ : “বিবিধ”
==================================