বেলা শেষের বেলায়,
গোধূলী লগ্ন হাক দিয়েযায় ক্লান্ত মেঘের ভেলায়।
বন্য টিয়ের দল,
ডানা ঝাপটের রব তুলে ঐ করছে কোলাহল,
ব্যস্ত ভীষণ ফিরতে হবে কর্ম হল সারা,
আধার ভূবন করবে গ্রাস নিত্য কালের ধারা,
রাখাল বালক তুল্লো যে সুর বেনুর কোমল বুকে,
গোচারণ ঐ সাঙ্গ হল ফিরবে আপন সুখে।
শঙ্খ ধ্বনি উঠলো বেজে দূরের সীমানায়,
তুলসী তলে প্রদীপ শিখা দিনের বিদায় চায়।
.
ক্লান্ত পথিক গন,
উদ্দমতায় আপন বেগে ছুটছে যে ভীষণ,
ফিরতে হবে নিজ গৃহে, পথের মুখে চেয়ে....
আপন মনে অপেক্ষাতে হয়তো ছোট্ট মেয়ে,
ছোট্ট হাতে আঙুল খানি ধরবে এসে যেই,
ক্লান্তিরা সব বিদায় নেবে, সোহাগ পরশেই,
আদোর কোরে নেবে বুকে আহ্লাদী হাত তুলে,
ক্লান্তি সকল সোহাগ হবে সকল দুঃখ ভুলে।
.
সূর্য বিদায় বেলায়,
পরম সুখের পরশ যেন সকল দুঃখ ভোলায়।
আবার নতুন সূর্য এসে,
নতুন দিনে নতুন রঙে চলাক একটু হেসে।
.
এমন বেলা শেষের বেলা,
নিত্য এথা ব্যস্ততা তে খেলুক একটু খেলা।
জ্বলুক প্রদীপ তুলসী তলে বাজুক দূরে শাঁখ,
বন্য টিয়ের ফিরতি ঝাপট দিকগো বিদায় হাক।
স্নেহের পরশ সন্তানি হাতে লাগুক নিত্য বুকে,
মোছায়ে দিক সকল কষ্ট সান্ধ্য কালীন সুখে।
................................................
[email protected]