প্রাণেরতরী-৩৯


ঠাকুর বিশ্বরাজ গোস্বামী


নীরবে কে ডাকো, নিরাকারে থাকো
হৃদটাকে ঝাকো, কাছে আয় আয়,
ভোর আঙ্গিনাতে, হৃষ্টি ধারাপাতে
সব সৃষ্টি মাতে, তুমি দূর গাঁয়।


ফুলে মধু হোলে, সমিরনে দোলে,
গত স্মৃতি ভোলে, অলির পরশে
ফুল তোলে মালী, ভরে ফুলডালি,
শেষে হয় জালি, সুখের স্ব-রসে।


করে বেচাকেনা, আনে পুষ্প হেনা,
হয়ে থাকে দেনা, ভবের খেলায়,
দূরে যায় তারা,  সাথী থাকে যারা,
হয় দিশেহারা, বিকেল বেলায়।


বিকেলের গানে, হৃদয়ের তানে,
তোমার-ই পানে, শুধু চেয়ে থাকে,
দু'চোখের জলে, হীন হয় বলে,
আকাশের তলে,  তোমাকেই ডাকে।


সব যার দান, ভুলি তার গান,
এই দেহখান, প্রাণের-ই তরী,
মূল কথা ভুলে,তরীখান খুলে,
বাদামটা তুলে, অবেলায় মরি।


কাজের-ই ফল, শুধু আঁখিজল,
করি শুধু ছল, তোমার-ই সাথে,
প্রাণের-ই তরী, মূলে ভূলে ভরি,
ডুবে রোদ্রকরি, কুলে নেও নাথে।