স্বাধীনতা তুমি এলে
ত্রিশ লক্ষ মানুষের রক্ত মাড়িয়ে
মৃত মানুষের ভেলায় চড়ে,
অসহায় নারীর ইজ্জত নিয়ে
হাজার মায়ের বুক খালি করে;
কালো আঁধার রাত পেরিয়ে
রক্ত রাঙা ঊষার ভোরে।

হে স্বাধীনতা তুমি-
দুঃখী মানুষের শেষ সম্বল বাসন,
তুমি বজ্রকন্ঠের প্রতিধ্বনি বঙ্গবন্ধুর ভাষন;
পাকি সেনাদের ঘায়েল করা দৃঢ় মনোবল
মুক্তিযোদ্ধা বীর বাঙ্গালীর সু-সজ্জিত দল,
মৃত্যু জেনেও গর্জে উঠা জয়বাংলা শ্লোগান
দেশের তরে নিবেদিত দেশপ্রেমিকের প্রান।

প্রিয় স্বাধীনতা,
উড়িয়ে দিলে লাল সবুজের নিশান
ধানের ক্ষেতের সোনালী হাসি পাখ-পাখালির গান,
তুমি বদলে দিলে জাতি-বর্ণের ভাষার তফাত
বিপদে ধরিয়ে দিয়েছো বলে  পরস্পরের হাত;
তুমি এলে আজ তাই সর্বত্র  বইছে খুশির রেশ,
তোমার জন্য বাঙ্গালী মোরা পেয়েছি বাংলাদেশ।