আমার স্বপ্নীল চোখ,রাতজাগা ভোরে
আজও খুঁজে ফেরে বসন্ত তোমায়।


অনুভবের করহীন দেশে তুমি রাজাধীরাজ,
বিবর্ণ জীবনে সাতরঙা রামধনু।
ধূ ধূ মরু প্রন্তরে তুমি রিক্ত ধলেশ্বরী,
অতীত-অধুনার আলিঙ্গনে স্মৃতির রংমশাল।


তুমি আছো বলেই মূক মুখে কথার নির্ঝরিণী,
কালা কানে শব্দের অথৈ বন্যা,
ধূসর চোখে স্বপ্নেরা বানভাসি,
গণ্ডুষে নীলাকাশ।


তুমি আছো বলেই গিটারের তারে সুনামি আসে,
নি:স্ব বাউলের বিশ্বে জাগে প্রত্যাশার ফাগুন।
অ্যাসিড সিক্ত রুক্ষ ঘরে প্রেমের হাওয়ায় নাছোড় রোমান্স,
বৃষ্টিভেজা বনপাখি চায় খড়কুটোতে বাঁধতে বাসা।


তুমি আছো বলেই পাথর চিরে রস নিঙড়ে আনা,
অমানিশায় সূর্য খুঁজে ফেরা,
তুমি আছো বলেই তত্ত্ব,তথ্য,বিজ্ঞান অকূলে ভাসে,
ভোঁতা কলম হোঁচট খেয়েও চলে।