মনে পড়ে আজ সেই সব স্মৃতি গুলি
মহা নগরের সব পাখি একদিন
আমার সব চুম্বন গুলো পৌঁছে দিত
তোমারই কাছে
এই নগরের সব বাতাস আমার স্পর্শ হয়ে
আছড়ে পড়ত তোমার সারাটা গায়ে,
তোমার মন খারাপের দিনগুলোতে
অনেক রোদ মাথায় নিয়ে পার্কের বেঞ্চিতে বসে থাকতে
শুধু আমায় দেখবে বলে..;
অতঃপর একদিন এক নিয়তির আশীর্বাদে
মিলে গেল শালিকের জোড়া
জীবনে প্লাবনে ঝড়ের তাণ্ডব শেষে
পেয়েছিলাম সেই তোমাকে।।


তারপর পেরিয়ে গেছে বহু বছর
তবুও আমার কেন জানি
আজকাল মাঝরাতে
বুকের ভিতর চিন চিন করে ওঠে
তোমাকে নিয়ে ভিষণ ভয় হয়
যদি হারিয়ে ফেলি তোমায়!
তোমার এই গোলাপী গাল যদি আর ছুঁতে না পারি
যদি আর না মিলতে পারে ঠোঁটে ঠোঁট
যদি তোমার আমার পাঁজর জুড়েই
নেমে যায় সন্ধ্যা
যদি আর শুনতে না পাই চির পরিচিত কণ্ঠের ডাক
যদি নাকে আর না আসে চির চেনা শরীরের ঘ্রাণ
যদি হারিয়েই ফেলি প্রিয় বিছানায় শুয়ে থাকা প্রতিটি দুপুর
যদি স্বপ্ন গুলো নিভে যেতে থাকে
কোন অদৃশ্য আবছায়ায়...
আমার ভীষণ ভয় হয়!!


আজ তবে অভিমান গুলি থাকুক না কিছু দিন দূরে
শুধু তুমিময় তোমাতে মিশে যাক আমার সব
আমার প্রতিটি স্পর্শ
আমার নিঃশ্বাস;
সেই আগের মতো করেই
আজ আমার প্রতিটি রক্ত কণিকা বলে উঠুক
ভালোবাসি ভালোবাসি।।