কৈশরিক কামনা আর বাল্য বয়সের ভার;
অজান্তে নেচেছি অবুঝ আমি,গেয়েছি গান।
দেখিনি এ আনন্দ উল্লাসে স্যারের অসম্মান
কিংবা এই সামান্যতম লেশ অবাধ্যতার।


পাঠদানে অক্ষম, দুর্বল মেধার সৌজন্য;
রাতভর জেগে জপেছি পাঠ তছবি সম
অকৃপন স্মৃতি শক্তি, বিফল মনোরথ মম
স্যার সন্মুখে 'বজ্জাত' বলে হয়েছি গণ্য্।


অজাচিত অপরাধে দুলেছে স্যারের বেত
আমার সুন্দর কোমল হাতের তালুতে,
সুশ্রী সতেজ মলিন  মসৃণ দুই বাহুতে।
মা বাবার শান্তনা-'এ'মার বেহেস্তের খেত'।


আজ এ আমি; যাচিত শত অপরাধে চলি
কিন্তু স্যারের বেত হাতে আর উঠেনা দুলি।