হে-বীর হও উজ্জীবিত
       ✍- উজ্জ্বল সরদার আর্য


       দেশদ্রোহী-ভিনদেশীরা যত করে বিরোধ
                  আমাদের বাড়ে ক্রোধ,
            ডমরুর তালে রুদ্র হয়ে নৃত্য করি!
    থাকি সদা চলচঞ্চল তটিনী লহরীতে উত্তল,
              দিগন্ত থেকে দিগন্তে যাই ছুটে
                  আলোর সন্ধানে মরি।
          ওরা মেঘ এনেছে রবি ঢেকেছে
                ক্ষত করে বুক আঁধারে,
    যখন লাগে সূর্যগ্রহণ ভিতুরা খোলে না নয়ন
          আমি এসেছি তাই বীরের দুয়ারে।
     ওগো-জাগো হে-বীর, দূরীভূত করো তিমির,
              হয়েছি  তোমার শরণাগত!
         দাও আশ্রয় অকুতোভয় অন্তরে
       সরিয়ে-সংশয়, জয় করো দূর-দিগন্ত।
   আজ যে দিকে তাকাই শুধু শত্রু দেখতে পাই,
           ওরা করতে চায় শাসন-শোষণ
                চেয়েছে রাজ্য এই ক্ষণে!
    তাই করো বিদ্রোহ কম্পিত হোক নক্ষত্র-গ্রহ
       হবে ওদের স্বপ্নভঙ্গ দলিত হবে চরণে।


           অনেক সয়েছি অন্যায় হয়েছি ক্ষয়,
                  আর কতদিন থাকবো নত?
                এবার দেখবে আমাদের ক্রোধ
                         করবো বিরোধ,
                      থাকবে মুক্ত অম্বর
                 উজ্জ্বল হবে রবির ঝলক
                   হে-বীর হও উজ্জীবিত।
             জানি-কাপুরুষের হৃদয় মাঝে
                  মৃত্যু ধ্বনি প্রত্যহ বাজে,
             তাই ভয়ে লুকিয়ে থাকে ঘরে!
               ওরে এবার জাগরে তোরা
                     হয়েছি সর্বহারা
           বীর হয়ে এগিয়ে যা শত্রুর দ্বারে।
              যখন অস্ত্র ধরে করি ধাওয়া
                 ওদের  যায় না পাওয়া,
                        লুকিয়ে পড়ে!
          ওরা মরতে চায় না, বাঁচতে চায়
             রক্ত খেয়ে থাকবে অক্ষয় -
                নিরীহ জনতার ভিড়ে।


              কিন্তু এবার রজনী শেষে
                    রবি উঠবে হেসে,
                ছড়িয়ে দেবে আলো!
                 ওরে আয় ভয় নাই
                নব দিগন্তে ছুটে চলো।
                 জানি ওরা তো মাছি,
           বানে ভেসে আসা পিপীলিকা!
                 ঠাই নিয়েছে দ্বারে,
             ভুলে গেছে ওরা নীহারিকা।
               তাই-জয় হবে আমাদের
                  দলিত করবো ওদের-
                       আমরা বীর!
         সকল বাঁধা পেরিয়ে আজ এসেছি
            নতুন আলোর দিশায় ছুটেছি
            ওরে তোরা এখনো কেন স্থির?
              আজ যুদ্ধ হবে মারতে হবে
                       আমি রক্ত চাই,
                স্বদেশের এই রুক্ষ ভূমি
                   প্রাণের থেকে দামী
              এসো সংগ্রামী হই সবাই।
                  আজ বাতাসে দুর্গন্ধ
               আমার স্বদেশ দহন-দগ্ধ,
               চারিদিকে শুধু মৃত্যু ধ্বনি!
        এসো হে-বীর বাজাও মুক্তির রাগীনি -
                    এই অন্ধকার রাতে
          তোমার আত্মদানে আসবে প্রভাত
            তৃপ্ত হবে ভূমি রঞ্জিত হবে রক্তে।


✍-উজ্জ্বল সরদার আর্য
রচনাকাল ১৪ জানুয়ারি ২০২১ সাল,
বাংলা ২৯ পৌষ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, বৃহস্পতিবার।
দাকোপ খুলনা,বাংলাদেশ।