অপেক্ষা
   ✍-উজ্জ্বল সরদার আর্য


কাছে পাওয়ার বাসনায় প্রেমের বাঁধনে বাধলে, সুন্দরতা বিনষ্ট হয়।
তাই তোমায় বাধিনি কোনদিন, শুধু ভালোবেসে করেছি অপেক্ষা।
সেই অতীতের রজনীগন্ধা'র-গন্ধ আজও আমার নিঃশ্বাস অবরুদ্ধ করে, সু-পরিচিত দিপ্তীময়ী রূপের মায়ায় যখনি মনোনিবেশ ভেঙে জাগ্রত হই,
তখন ব্যাকুলতায় খুঁজতে-খুঁজতে হারিয়ে যাই পৃথিবীর অপরিচিত অন্তরের-অন্তস্তলে।


কখনো শরতের সুনীল নির্মল অন্তরীক্ষে সাদা মেঘের স্বর্গ রাজ্যে তাকিয়ে থাকি,
কখনো বাতাসে দোল খাওয়া কাশবনে দেবী সজ্জায় হেটে যেতে তাকে দেখি।
আর যখনি হৈমন্তিক শিশিরে ভেজা আমন ধানের পাশ ঘেঁষে গহীন-গহনে প্রবেশ করি,
দেখি ভালোবাসার শিউলি ঝরে গেছে-----


এভাবে প্রতিমুহূর্তে আঘাতে-আঘাতে নিস্তব্ধ হয়ে যাই,
হারিয়ে যায় মনের সমস্ত শক্তি।
ক্ষতবিক্ষত বুক থেকে ঝরে পড়ে রক্ত, ক্রন্দনে নয়নে গড়িয়ে পড়ে অশ্রুজল।
নত ভারাক্রান্ত মনে বসে পড়ি ধরণীর বুকে।
ধুলা মাখা দেহে কুড়িয়ে নিয়ে বুকে জড়িয়ে, অপূর্ণ প্রেমের
গীতাঞ্জলী সুরে করি চিৎকার।


বিচ্ছেদ-বিরহ ও স্বজন হারানোর মতো সত্য এবং বাস্তব যাতনা মনকে চিরকাল দণ্ড দিয়ে যায়।
সে দণ্ডে-দণ্ডিত হয়ে স্মৃতিচারণ খুলে যত গভীরে যাই,
তোমাকে তত কাছে পাই।
যদিও নয়নে-নয়ন রেখে বিশ্ব দেখার সৌভাগ্য আমার কোনদিন হলো না।



✍-উজ্জ্বল সরদার আর্য
রচনাকাল ১ জুলাই ২০২০ সাল, বাংলা- ১৭ আষাঢ় ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, বুধবার, সকাল ৮-৩৪ মিনিটে।
দাকোপ খুলনা,বাংলাদেশ।