শাওন
   ✍-উজ্জ্বল সরদার আর্য


             সুনীল অন্তরীক্ষে অভ্র এলো সহসা ভেসে
                     পুষ্প-পাপড়ি মেলেছে হেসে-
                               বনে-বর্ষণে,
               সমীরণ-সেতারের সুরে স্মৃতি জাগালো
                   স্মরণে তোমার গন্ধ ভেসে এলো-
                              আমার প্রাণে।
              তাই-পুলকিত পাপিয়ায় পাখা মেলেছি
                  ওগো-আজ বিরহ-বেদনা ভুলেছি-
                         এসেছি তোমার দ্বারে,
                 তুমি দ্বার খুলে দেখো আঁখি মেলে
                      গ্রহণ করো অভিমান ভুলে-
                             আজ আমারে।
                    
            ওগো-মেঘের বুকে মেঘ হলে হতে হয় ক্ষত    
                 সে-যাতনায় হয়েছি আমি আজ নত-
                      ঝরে রক্ত অবিরত-অন্তরে,
                  তুমি দেখতে কি পাও হয়েছ উধাও          
                       রঞ্জিত চরণে নূপুর বাজাও-
                           ভুলনা গো আমারে।
                  আমি আঁধার রাতে খুঁজতে-খুঁজতে
                            কত-শ্রাবণ এনেছি,
                    তোমার অপেক্ষায় অশ্রু ধারায়
                             পথ ভিজিয়েছি-
                   ডেকেছি নাম ধরে পুরাতন প্রেমে!
              ধরেছিলাম যে হাত দিয়েছে সে আঘাত
                 রেখেছি বাধিয়ে তারে হৃদয় ফ্রেমে।


                  শুধু-মনে পড়ে ফেলে আশা স্মৃতি
                   শত-শত অধর চুম্বনে গড়া প্রীতি,
                       ওরা কি করে যায় ভুলে?
                   কত-রজনী ক্ষণে রজনীগন্ধা বনে
                      কত মিলেছি-মিলনে যৌবনে,
                     কত দিয়েছি বেণিবন্ধন খুলে।
              ফুলের গন্ধে দেহের গন্ধ মিশিয়েছি কত
                  ছোড়ানো আবিরে অবয়ব রঞ্জিত
                     সে-যেন শিল্পীর আঁকা চিত্র,
           বেহুঁশ বুকে-বুক মিলিয়ে শরীরে-স্বেদ ঝরিয়ে
                  অমৃত ভেজা অধরে-অধর ছুঁয়ে
              মিশ্রিত রক্তে লিখেছি কত প্রেম-পত্র।


                       তবুও তুমি চলে গেলে
                 সকল স্মৃতি হৃদয় হতে মুছে ফেলে,
                    ফুল হয়ে ফুটলে অন্য বাগিচায়!
                        কি ছিল তবে-তোমার প্রাণে
                            চোরাবালি নয়নে,
                  বেঁধেছিলে মিথ্যা প্রেমের মায়ায়।
                   ওগো-মন যে আমার মন চেয়েছে
                         তোমারে ভালোবেসেছে,
                  তাই লুটিয়ে পড়েছে তোমার চরণে!
                        ওগো তুমি দিও না বিদায়
                  হাতটি ধরো এসে এই শাওন সন্ধ্যায়,
                         সঙ্গী হও জীবন-মরণে।


                যদি ভালো না বাস, এসেছিলে কেন?
                  আঁধারে হৃদয় চেনা যায় না কখনো-
                       শুধু শ্রাবণ রাতে স্বপ্ন বোনা!
         বর্ষায় ভিজেছি কত দুজন হাতছানি দিচ্ছে নির্জন,
          আজ মনে শুধু সে কল্পিত কবিতার আনাগোনা।
                     ও-যে আর আসবে না ফিরে
                             ফুল গেল ঝরে
                        শাওন সঙ্গী হল আমার,
                আমি বাক রুদ্ধ মনে আছি বসে বনে
                           মরণের আমন্ত্রণে
                   বিরহ বহ্নিতে জ্বলছি একাধার।



✍-উজ্জ্বল সরদার আর্য
রচনাকাল ইং- ২১ জুলাই ২০১৯ সাল...
বাংলা-৪ ওই শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ (রবিবার)
দাকোপ খুলনা, বাংলাদেশ।