সৃষ্টির স্পৃহা
-উজ্জ্বল সরদার আর্য



    ওই পলকহীন চোখে আঁধার কেটেছে
           ছুটছে সৈনিক ছুটছে গো,
     আজ প্রাণ পুলকিত আকাশে আদিত্য
          কাননে কুসুম ফুটবে গো!
        অকারণে অনেক দিয়েছি রক্ত
          রঞ্জিত মাটি আজ পূজিত,
             হয়েছি শুধু নির্যাতিত
           নিরীহ জনতা আমরা গো।
    অনাহারে অহ যায় বিভাবরী'তে বিদায়
      হে বন্ধু!কত ডেকেছি তোমায় গো।।


      আরো দিয়েছি অশ্রুজল শুষ্ক নয়নে
        ক্ষণেক্ষণে অবহেলায় ঝরে যায়,
    ওগো অভয় দাতা!সেদিন কেন বোঝ'নি
     ক্ষত জননী-শুধু তোমায় ডেকে যায়।
      তবে আজ অন্তরে জেগেছে আশা
          আমার পূর্ণ হবে রক্ত তৃষা,
            প্রহর শেষে পশিল পুষা
        প্রতিশোধের মন্ত্র মনে বিলায়।
          বন্দুকের বুলেট বুকে বিদ্ধ
          বিধ্বংসে রুদ্র আমি অক্ষয়।


    ওগো আজ আমার দ্বন্দ্বে দুনিয়া কাঁপে
    প্রাণ দাও চরণে সঁপে সৃষ্টির অভিলাষে,
       আমি অর্ঘ সাজাই রক্তের অক্ষরে
    ক্ষত কবিতার তরে কবির বেসে-এসে।
    ওগো আজ চিনতে কি পারলে আমায়
      লোহিত রক্তে সাজিয়েছি তোমায়
             দিও না হে বন্ধু বিদায়
     বুকে নাও গো একবার ভালোবেসে।
    যা চেয়েছিলে’তা তোমার'ই অধিকার
       আজ থেকে বঞ্চিত হবে না আর
শতবার এসে প্রাণ দেবো প্রাণের  উল্লাসে।।


উজ্জ্বল সরদার আর্য
রচনাকাল ইং - ২৮ সে মে ২০১৯ সাল
বাংলা ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
মঙ্গোলবার সকাল ৮.৩০ মিনিটে
নিজ ভবনে।