ভাগ্যহত
   ✍-উজ্জ্বল সরদার আর্য


       হয়েছি স্বজন হারা পান্থ ছুটতে-ছুটতে আজ ক্লান্ত
         অন্তর তৃষিত চরণ রক্তাক্ত কাঁটার আঘাতে,
                ভাগ্যহত যারা তারা অকালে মরে
                       আমি আছি অনাহারে
        হয়ে লুণ্ঠিত-পীড়িত-প্রাণে ক্ষত দেহে এই রাতে।
             মিথ্যা ঋণের দায়ে নিয়েছে সব ছিনিয়ে
                     করেছে আমারে গৃহ-হারা,
              সেই ভিটে মাটি রাজ ভবনে পরিপাটি
                     নয়ন দুটি ঝরায় অশ্রু ধারা।
           এখন এখানে কত লোকের হয় আনাগোনা
                 এ-রেস্টুরেন্টে আমার ঢোকা মানা,
               করে কত লাঠি পেটা তবুও লাগে মিঠা
                  বধূর হাতের পিঠা প্রাণ ভোলে না।
              ও-যে এখন এখানেই ঘুমায় সারাবেলা
                        বদ্ধ ঘরে দিয়েছে তালা,
                      খাজনার দায়ে ধর্ষিতা হয়ে
                  আপন গলে পরেছিল অগ্নি-মালা।
          তাই-আজও ছুটে আসি ফুল কুড়াই রাশিরাশি
                    ওগো-তোমায় সাজাবো বলে,
                ও-রা পদাঘাতে প্রাণকে করেছে ক্ষত
          হই শত-শত বার নত, করি মিনতি অশ্রুজলে।
       তবুও খোলে না দুয়ার, কি করে মুক্ত করি তোমার?
                    আমার যাবার সময় হলো!
      পচা-বাসি খাবার খেয়ে চিল শিয়ালের সঙ্গ দিয়ে
            নুড়ি পাথরে মাথা রেখে এ-প্রাণ ঘুমালো।



✍-উজ্জ্বল সরদার আর্য
রচনাকাল ১০ জানুয়ারি ২০১০ সাল
দাকোপ খুলনা, বাংলাদেশ।