উচাটন মন কেন তুমি এতো বেদনা বিলাসী?
পায়ে ঠেলে দাও পথে পাওয়া সুখ
ভাল লাগে না শুধু হাসি মুখ
বেদনা জাগাও বারে বারে হৃদয় কুসুমে ভ্রমরের মত আসি।


পাখায় তোমার চির চঞ্চলতা
ঘিরে থাকে ভীরু বিহবলতা
কোথায় কোন অজানায় বিরহ নদীর স্রোতে যাও ভাসি।
দেখেও দেখ না সেই আকুলতা
শুকায়ে গেল ঘরের মাধবিলতা
ব্যাথার বাগানে আত্নমগ্ন, ঝরে যায় নিভৃতে শত ফুলরাশি।


বলি, ঐ নীলগীরি মায়ামৃগ ছেড়ে
ফিরে এসো আজ তব নিজ নীড়ে
নিজেকে চিনে নিজেকেই বলো, ‘তোমাকেই যাব ভালবাসি’।
চেনার মাঝে আছে যে অচেনা
খুঁজে পেতে তা্রে করো সাধনা
দেখবে সেথায় আছে নীরবে অবগুন্ঠিত আপনার হাসি।