বলে ছিলাম কর-জোড়ে
         আগুন নিয়ে খেলো না,
দহন থাকুক তুষের ভিতর
ধিক্বি ধিক্বি জ্বলতে থাকা সুপ্ত গরল।


বলে ছিলাম আগুন থাকুক
             চুপিসারে ঘাপটি মেরে
বহুদিনের জমাট বাঁধা বরফ কুচির
         অটল-অনড় পাহাড় তলে।


শুনলে না তা
ভাঙ্গলে তুমি। টললো পাহাড়-
সখ হলো কি আগুন খোঁজার?
সুপ্ত সেই অগ্নিগীরি
করলে এই বার আবিষ্কার!


বলে ছিলাম দিয়ে দোহাই
      আগুন নিয়ে আর খেলো না
অঙ্গ পুড়ে হবে অঙ্গার, রবে ভষ্ম ছাই।
মানলে না তা
জ্বাললে নিঠুর ছোট্ট একটা দিয়াশলাই।