প্রাণের ঝরনা দেখ বয়ে চলে
প্রিয় তার পাহাড়ী ঢালু পথ
     থাকে না সে সমতলে।
যেন কোন উদ্দাম পারাবত
পেরিয়ে যায় দূর ছায়াপথ
আকাশ ছাপিয়ে শুধু উড়ে চলে।
স্বপ্নের সৌধ ভেঙ্গে-চুরে যায়
আশা কুঁড়ি কত ঝরে যায়
না পাওয়ার বাঁশি কান্নার বৃষ্টি নামায়
             তবু সে ছুটে চলে।
কিছু বলতে চেয়ে কেটেছে সময়
অপেক্ষাতে হয়ে গেছে তারুন্যের ক্ষয়
শত কথা সে বলে যায়
          কোন কথা না বলে।
পাওয়ার আশা হয়েছে জলাঞ্জলি
ফুটতে চেয়েও ফোটেনি যে কলি
সেই ব্যাথা মিশে গেছে শুধু
        নিঃশব্দ আঁখির জলে।


নিভু নিভু হারানোর সুর
ভেসে ভেসে যায়, যাক বহু দূর
ফিরবে না আর চেনা সেই গানের পাখি
              কানে কানে গিয়েছে বলে।
কাঁদে না সে কোন বেদনায়, কোন শোকে
দেখে যায় যা কিছু ভিন্ন চোখে
        নিজের মত সে যায় চলে।