গভীর বনে যেমন থাকে আলো-ছায়া- রোদ
চিরকাল আমি ছিলাম শান্ত শিষ্ঠ সুবোধ।
বিজন পথে বেজে চলে ঝরা পাতা মর্মর
শুষ্ক চোখ যদিও হাসে কাঁদে বুঝি অন্তর!


বাস্তবতায় হারিয়ে যায় সরল অনুভব
কন্ঠ ঘিরে নীরবতা, চোখে পরাভব।
বুঝি না আমি মুক্তি, বুঝি না কোন বাঁধন
খুঁজে বেড়াই হেথাহোথা মানুষ হবার সাধন।


থাক না অমন পাড়ের গায়ে নিস্তরঙ্গ জল
স্রোতের মুখে আমার যে উলটো চলাচল।
অবদমিত তলে কেউ ছুঁড়ো না ঢিল
প্রতিচ্ছবির মধ্যে দেখো আকাশ অনাবিল।


ঢেউ এলে পাড় ভাঙ্গে, ভাঙ্গে শান্ত ছবি
জেগে ওঠে ভিতরের অশান্ত কোন কবি।
মনের ভিতর থমকে থাক শূন্য পারাবার
বন্ধ ঘরে সইবো একা রুদ্ধ কথার ভার।