নদীর গায়ে বটের ছায়ায়
ছোট্ট-কুটির আছে যেথায়
          মাটি দিয়ে গড়া
চালটি তার শন পাতায় ছাওয়া।


ছোট্ট দুটি জানলা দিয়ে
সূর্য ঢোকে আলো নিয়ে
               ঝলমলিয়ে
আরো আসে শীতল দক্ষিণ হাওয়া।


থাকো যদি সেথায় তুমি
নদীর পাড়ে সবুজ ভূমি
              দেখবে আরো
নদীর মাঝে মাঝির পানসি বাওয়া।


দেখবে জলের কিনার ঘিরে
পাতি হাস ঘুরে ফিরে
             ডুব সাঁতারে
দুষ্ট কোন কিশোর দলের নাওয়া।


সূর্য যখন অস্তে যাবে
নদীর জল রাঙা হবে
            দেখবে তখন
গঞ্জে লোকের ত্রস্তে ফিরে যাওয়া।


রাত্রি ঘন নিঝুম হলে
নিকস কালো নদীর জলে
            প্রতিবিম্ব
দূরের কিছু তারার আসা-যাওয়া।


শয্যা পেতে শোবে যখন
কানে তোমার বাজবে তখন
              ভাটিয়ালী
উদাস সুরে দুখী কণ্ঠে গাওয়া।


মিলিয়ে দেখ, সেই কুটিরে
স্বপ্ন জাগায় ধীরে ধীরে
              মিলিয়ে যায়
মিশে যায় তোমার আমার চাওয়া।