শীতকাল


জাহিদ হোসেন রনজু
-------------------------------®


শেষ হলে হেমন্ত শীত ঋতুর আগমন
শীত আসে তাড়াতে যত সব পুরাতন।
রুক্ষতা, শুষ্কতা, শীর্ণতা প্রকৃতির
শীত শেষে দূর হয়ে ধরা পায় নব নীড়।
গাছগুলো পাতাহীন বিবর্ণ মরুময়
ধীর লয়ে ডালে তার জাগে ফের কিশলয়।


হিম পড়ে পড়ে হিম আসে শীত যখনই
কুয়াশার চাদরে ঢাকে ভোর তখনই।
শীতকালে হিম বায়ূ দেয় দেহ নাড়িয়ে
থাকে নর নারী সব শীত জামা জড়িয়ে।
সারা শীত ছেঁড়া বেশ দিয়ে গায় নিরুপায়
বাঁচিতে শীত থেকে রোদ খুঁজে অসহায়।


খেজুরের মিঠে রস খেতে বেশ সকালে
দাঁতে দাঁত ঠকাঠক কড়া রোদ আকালে।
পিঠে আর পায়েসের সুগন্ধে মাতে গ্রাম
দল বেধে নাইওরী আসে যায় অবিরাম।
আনন্দে উৎসবে নিশি দিন কেটে যায়
প্রাণে প্রাণ মিলনে নব প্রাণ ফিরে পায়।


নানা ফুল ফুটে রোজ সৌরভে ভরে দিক
ভোর বেলায় হাসে ফুল শিশিরে চিকমিক।
অপরূপ শোভাময় হলুদের সমাহার
বিছানো গালিচা যেন মাঠ সরিষার।
তাজা শাক-সবজিতে ভরে খেত চারিধার
তরতাজা তরকারি খেতে বেশ মজাদার।


আসে দূর দেশ থেকে অতিথি পাখি সব
সারা দিন দল বেধে করে যায় কলরব।
আনন্দে সারাক্ষণ জলকেলি দহরম
নানা কায় নানা রূপ অপূর্ব মনোরম।
যদিও শীতকালে ফ্যাকাসে সূর্যোদয়
তবু রোদ সকালের কাঙ্ক্ষিত মধুময়।


----------------------------------
২০ ডিসেম্বর ২০১৯, মিরপুর, ঢাকা