পর্ব তিন;
এসো না জানি ছাত্র সমাজ
কোন কাজ কি ভাবে করিলে
করা যাইবে অগ্নি প্রতিরোধ ব্যবস্থা!
তাই তো অগ্নি প্রতিরোধ ব্যবস্থায় রইবে
নিম্ন বর্ণিত নিয়ম সমূহ করিলে পালন হইবে সাধন
দেখি কি কাজ করিলে রক্ষা পাইতে পারে
জন মানবের জীবন ও সম্পদ।
অসাবধানতাই অগ্নকান্ডের মূল কারণ;
সাবধানতা অবলম্বন করিয়া করিলে কাজ
ঘটিবে না ঐরুপ অগ্নিকান্ডের মত ভয়াবহতা,
কর যদি রান্না;
রান্নার কাজ শেষে ভাল করে নেভাও চুলা তবে'
জ্বলন্ত চুলার উপরে রাখা যাবে না শুকনা কাঠ
ভিজা কাপড় শুকাতে দেওয়া যাবে না কোন মতেই'
চুলার নিকটস্থ বেড়ায় মাটির প্রলেপ থাকতে হবে'
যেখানে সেখানে জ্বলন্ত সিগারেটের অবশিষ্টাংশ যাবে না ফেলা
সিগােরট না খাওয়াই ভাল!


যদি কেহ খেতেই চায়, খাও তবে নিয়ম মেনে
ধুমপান নামক এরিয়ার ফ্রি জোনে বসে।
সব সময়ই সর্তক থাকতে হবে, খেলা করা যাবে না আগুন নিয়ে'
গোঁয়াল ঘরে ধোঁয়া দেয়ার শেষে আগুন নেভাতে হবে সর্তকতার সহিতে।
কোন অবস্থাতেই করা যাবে না খোলা বাতির ব্যবহার;
বন্ধ করতে হবে বিভিন্ন উৎসবের আতসবাজির ব্যবহার প্রতিটি ঘরে ঘরের'
কমপক্ষে পনের দিনে না পারলে মাসে একবার পরীক্ষা করতে হবে
বসতঘর, দোকানপাঠ এবং শিল্প-কলকারখানার বৈদ্যুতিক তার,
প্রয়োজনে বদলিয়ে ফেলতে হবে পুরাতন তার ও স্যুইচ বোড সমূহ।
হে বন্ধু-বান্ধবী আপন জন দেখ না তাকিয়ে বসতঘরেতে, দোকানপাঠে,
শিল্প-কলকারখানাতে মাকড়সার জাল বিস্তার যেন না করতে পারে
করিলে পরিস্কার রাখতে হবে সব সময়, করলে অবহেলা রক্ষা করবে না
ঐ মাকড়সার জালে লাগলে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে ভষ্মিভূত হবে যে'
আগুনের কাজের সময়ে হাতের কাছে মজুত রাখতে হবে পানি ও বালু।

হাট-বাজার, শহর-বন্দর, সর্বত্র রাখতে হইবে অগ্নি প্রতিরোধ ব্যবস্থা!
তেলের আগুনে কোন অবস্থাতেই পানি দ্বারা নেভানো যাবে না আগুন যে
তেলের আগুনে পানি দ্বারা নেভাতে গেলে আরও ছড়াবে আগুন যে'
নিজে জানতে হবে ও জনগনকে পরামর্শ দিতে হবে তেলের আগুনে
যাবে না পানি ব্যবহার যে। তবে ফোম টাইপ অগ্নি নির্বাপক যন্ত্র
করা যাবে ব্যবহার উক্ত তেলের আগুনে।
বিপদ সীমা অতিক্রমের সম্ভাবনাতে জরুরী ভিত্তিতে সংবাদ
দিতে হইবে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষকে।
অগ্নি নিরাপত্তা ব্যবস্থায় প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে সকল শ্রেণির
পেশা জীবি জন সাধারণের; এতে নেই কোনই সন্দেহ তবে যে;
এসো না ভয়াবহ আগুনের হাত হইতে রক্ষায় প্রশিক্ষণ গ্রহণ করি সকলে।। (চলমান)
===×××===
===×××===
বাণী : জন হিতকর কাজ! সেই কাজটি ছোট হউক বা বড় হউক কোন অবস্থাতেই সংঘঠিত করে ভবিষ্যতে নিজের অমঙ্গল ডেকে আনা ঠিক নহে। যা হঠাৎ ভয়াবহ অগ্নি কান্ডের আগুনের মতই ধ্বংসের ক্ষতিকর ভষ্মিভূত অভিষপ্ত জীবন লাভ ছাড়া আর কিছুই নহে।।