(শ্রদ্ধাভাজন নিরুফা আপার স্বরণে)


বন্ধু;
কিছু দরকারি কথা বলতে চাই তোমায়।
এর আগেও চেয়েছি বহুবার।
পারিনি।
যতবার তোমার জন্য শব্দ তৈরি করেছি
ততবার হিংস্র সময় আমায় তাড়া করেছে।
বেয়নেট খোঁচানো শরীর,
টেনে হিচড়ে এনে দাড় করিয়েছে
তোমাদের রাজপথে।
পিচঢালা রাজপথে!
যে পথ;
একদিন রক্তে ভেসেছিলো
স্বাধীনতার স্বপ্নে হেসেছিলো,
মুখ গুমরে কেদেঁছিলো
কোন নারীর বক্ষে।
কিন্তু;
আজ আর কোন বাধা নয়।
শব্দের যে সওগাত তোমার জন্য রেখেছি
আজ তা দিতে চাই
আমি চাই;
আবার উদ্দীপ্ত হও তুমি।
তোমার মরে যাওয়া রক্ত কোষগুলো
আবার জেগে উঠুক।
রক্তে লাল হয়ে উঠুক তোমার চোখ।
গর্জে উঠুক রাইফেল।
প্রণাদ বাজুক কন্ঠে;
স্বাধীনতা দাও……..!
স্বাধীনতা দাও……..!
স্বাধীন মানচিত্র দাও!
আমি চাই;
তুমি আবার
মানুষের মাঝে ফিরে আসো
নতুন করে ভালোবাসো।
কথা বলো চোখের জলে কিম্বা গোলাপে।
কিন্তু বন্ধু;
আজ তুমি ফিরিয়ে দিলে এ সওগাত।
মলিন হেসে বললে;
আজ আমি নিশ্চল পাথর।
শুধু অপেক্ষমান;
শব্দের শেষ উচ্চারণ।
চিবুক বেয়ে নামা জলের শেষ বিন্দু
ঘরের দেউড়ি পাড় হওয়া
বাতাসের শেষ আলোড়ন।
কারন;
নিরুফা আপা ভালো নেই।
ভালো নেই………..!
ভালো নেই………..!
------------