সুবোধ বালিকার মুখে নির্বোধের হাসি
উল্টো স্রোতে ভাসে তরী স্তব্দ জলরাশি।
খেমটা তালে ঘোমটা নাচে নীলাভ আবেশ
লাল পানিতে প্রলাপ গীতি তপ্ত পরিবেশ।
গোলাপ কাঁটায় বিদ্ধ বাসর রক্তঝরে তায়
নিথর প্রাণ উঠলো কেঁপে শিহরিত গায়।
আলোর ঝিলিক আঁধার ভাঁজে আধো অন্তরীণ
সুখের আশে দুঃখের বিলাপ শূন্যে বিলিন।


নিশাচরের নগ্ন থাবায় ক্লান্ত বিবেক মরে
শান্তির বাণী সমীরে মিলায় উন্মত্ত পা ধরে।
আশার প্রদীপ জ্বলে-নিভে ব্যর্থ চলার পথ
স্বপ্ন ভাঙ্গার করুণ সুরে থামলো মনোরথ।
কবির কলম স্তব্দ নাহি আঁকছে নতুন ছবি
আঁধার রাতের প্রহর কেটে জ্বলবে আবার রবি।