ভাবতে ভাবতে ঘুমিয়ে পড়ব
এই কথা ছিল ।
তোমার চোখ জোড়ায় পিষে যাওয়ার আগেই
মৃত্যু ফাঁদ বুনে ধরা দিই...
আলোকবর্ষ এককে ছুটি— দূরে
আরও দূরে...
সারি সারি রঙচঙা মলাটে ঢেকে যাই
ফুরিয়ে যায় বর্ণনা ।
যাই হোক—
ভাবতে ভাবতে ঘুমিয়ে পড়ব
এই কথা ছিল ।
চোখের চলমান ফোকাসে অতীত
নচ্ছার অঙ্কের খাতায়
টুটাফুটা নাম, ছবি ।
কোট করা ‘অচিন পাখি’
বৈরাগী বাউলের গান—
‘শোন, কথা শোন ক্ষ্যাপা’...।


বাঁধন ছিঁড়েছে
অলিন্দ নিলয় ঘুরে ফিরে গেছে
যাযাবর ।
যাই হোক—
ভাবতে ভাবতে ঘুমিয়ে পড়ব আবার ।
তোমার আঁচলের রূপকথায়
কাজল দীঘিতে নৌবহর
অগোছালো নীল আলোয়
আবছা ঠোঁটে জেগে ওঠে— প্রেমের সংজ্ঞা ।
রাত ভারি হয়— জোনাকির কানামাছি খেলায়
তুমি হয়ে ওঠো তিলোত্তমা ।
হঠাৎ একরাশ কালো মেঘ ছুটে আসে
রূপকথার জানালায় লাগে মরণ ঢেউ
পাঁজরের প্রকোষ্ঠ বেজে ওঠে—


ঢং...ঢং...ঢং...ঢং...