কোনো সংশয় রেখোনা তুমি আমাকে নিয়ে
আমি একটু দুষ্টু ছেলে তাই বলে নই বখাটে,
আমি একটু উড়ন চন্ডি ব্যস্ত উড়াই আকাশে
আমি একটু বেশি আশাবাদী ফুল ফুটাই সমূদ্রে।


আমি সদা কৃতজ্ঞ ভালোবাসি বাবা-মাকে
আসলে আমি দূদার্ন্তও- ভয় করিনা কাউকে
দাঁড়াই একাই বুক ফুলে অন্যায়ের বিরুদ্ধে;
চেনাজানা অনেকে তাই থাকে দূরে দূরে
রাস্তা-ঘাট মাঠে যারা ইভটিজিং করে
রাস্তাঘাট মাঠের কাজ যারা ধব্জভংগ গড়ে।


আমার বন্ধুরা আমার ওপর আস্থা রাখে অগাদ
আমার সাথে হাত ধরে খোলে রুদ্ধ যত কপাট,
আসলে আমি হাসিখুশি ভাগ করে দেই সকলকে
নিজের দুঃখ আড়াল রাখি একলা মনের গভীরে।


আমি একটু বেশী প্রতিবাদি, সংগ্রাম আমার রক্তে
আমি একটু বেশি অভিমানি, দেশ প্রেম অগ্রে,
আমি একজন অপ্রকাশিত বীরঙ্গনার ছেলে!
নকলের দাপটে আজ আসল যাচ্ছে তলিয়ে
মুক্তিযোদ্ধার সনদ আজ চ্যালা চামুচের পকেটে।


আমার আপুকে কখনো বলোনা জারজ -
বরং তারে উচ্চ ভক্তি, চির জনম সন্মাণ,
শ্যামলে ক্ষত রক্তে রঞ্জিত উড়ছে যে পতাকা আজ -
তা কাদের অবদান?
তা আমার মায়ের ত্যাগের অবসান।
তা আমার বাবার জীবন দান।
তা আমার ভাইয়ের টগবগ সবুজ শুভ্র রক্ত দান।
লক্ষ কোটি জনতার একাত্ব, মুষ্টি বদ্ধ, মুক্তি যুদ্ধ।
তাদের কি হয় কখনো কোনো সমমান?


মুক্ত মনে ভালোবাসি আমি আমার মাতৃভূমিকে
মুক্ত মনে শ্রদ্ধা করি আমি আমার বাংলাভাষাকে,
কে কি বলল কে কি করল ভাববোনা হীন কখনো
প্রাণপণে কাজ করবো আমি আমার দেশের জন্য।