আমি আজ চতুর্দিকে  তাকালে শুধু  শকুনের  দল দেখি,
যে শকুনিরা আমার হতদরিদ্র মানুষকে অসহনীয় নির্যাতন করে
কখনো রাতের আঁধারে গ্রাম থেকে বিতাড়িত করে লুটে নেয় তার বাড়িঘর, সম্পদ কিংবা ইজ্জত।  
কখনো ফতোয়া দিয়ে আত্মহননের পথে এগিয়ে দেয় গ্রামের সবচেয়ে দুরন্ত  মেয়েটিকে।
অনেক শকুন আবার সমীকরন কষে সেই মেয়েটিকে নিজের করে পেতে
এরাই সেই শকুনেরা, যারা আমার হতদরিদ্র মানুষের শেষ সম্বল সম্মানটুকু কেড়ে নেয়
যারা কখনো কারসাজি করে   সবচেয়ে  সহজ সরল মানুষের চোখে মুখে চোরের দ্রাঘিমা রেখা এঁকে দেয়।
আমি প্রতিনিয়ত গভীর রাতে  ঐ নির্যাতিতদের আর্তনাদ শুনতে পাই
শুধুই আর্তনাদ নয় বরং গগনবিদানী আর্তনাদ।
তাদের কান্নার সুর শুনে আমি নিজেকে ধরে রাখতে পারি না!
তাদের আর্তনাদ কখনো শিয়ালের চিৎকারকে হার মানায়, কখনো বৃষ্টিকে  
বৃষ্টির শব্দের সাথে তাদের কান্নার সুর কখনো আবার হারিয়ে যায়।
তবে শুধু কান্না কি  এর সমাধান?
না।
তোমাদের জেগে উঠতে হবে
করতে হবে প্রতিবাদ
প্রতিবাদের শক্তি দিয়ে  ভেঙে দিতে হবে  শকুনরূপীদের বিষধর দাঁত।
তবে এখনো ঘুমিয়ে কেন?
জেগে ওঠে কর প্রতিবাদ শুধুই প্রতিবাদ
তাহলে তোমাদের করতে হবে না আর্তনাদ।