এ নদীটা (নাফ নদী) পাড়ি দিয়ে চরের জমিনটুকু পাড় হলে
এঁকেবেঁকে চলে যাওয়া রাস্তার দু’পাশে
সবুজ গাছের ‘পর ঝুলে আছে যে আকাশ
তার নিচে ঝোপ-ঝাড় আমাদের পাখিদের সংগ্রামী আবাস।
ওখানের বসন্তের বাতাসের সুরে প্রাণে প্রাণে গান হয়
                    রাতের অঘুম নিরাবতায় নির্মল জোছনায়
খোদার ফেরেস্তা নেমে এসে সালামুন সালামুন রবে
শুধু আমরা হৃদয়ের মাটি ফেলে চলে এসেছি এ পাড়ে
সাম্প্রদায়িকতা মানুষের হৃদয় ফেলেছে খেয়ে বলে!  
                      ঐখানের নীল আকাশের তলে  
নরম সবুজ ঘাসের উপর যুবকের রক্ত ঢেলে
                        যুবতীর স্তন কেটে
আগুনের পর আগুন জ্বলছে মানবতা – পুড়ছে মানুষ মানবতার প্রাণ
চেয়ে দ্যাখো হৃদয়জমিনে বয়ে যাচ্ছে আরাকান বাতাসের ঘ্রাণ!
                     ওখানের বাতাসের বুকে আমাদের স্বপ্ন ওড়ে
মেঘের কোলের রঙের খেলায় আমাদের মনবালিকারা ডানা হয়ে ঘোরে
                       ও সবুজ আমাদের
                      ও নীল আমাদের
আমাদের নিরব স্বরের রোদ, কাকের বকের মেলা আরো সারি সারি ঘর
সংগ্রামী ঝড় আদুরে প্রেম নদীর বিনুনী ফুল অজস্র অপার!
                 ঐ সব ফেলে আমরা চলে এসেছি এ পাড়ে
ওরা মানুষ; মানুষ তোমরাও বিবেক মানবতা বিনে
                    তাই মানুষের পৃথিবীতে আমরা তো রিফিউজি
ফিরিয়ে দেওয়ার আগে বলে দাও কোথায় মানবতার আবাস - আমাদের পৃথিবী?!