হৃদয়ে আজ রুক্ষ বালুচর
নেই দক্ষিণা পবনের ছোয়া,
সব কিছুই আজ হয়েছে পর
দূরে চলেছে আবেগ-মায়া।
নির্ঘুম রাত ক্লান্তিমাখা দিন
একমাত্র জীবন সঙ্গী হয়ে,
চলেছে অবিরাম শুধতে ঋণ
একাকী অচেনা কোনো গাঁয়ে।


বাসন্তী ছোয়া নেই আজ মনে
মন জুড়ে শুধুই নীরবতা,
স্বপ্নগুলো আজ বামে ডানে
শুনিয়ে যাচ্ছে শতশত কথা।
আজ বেলা শেষে আসেনি
ঘুম পাড়ানো কোনো রাত,
কোনো ছন্দ লেখা হয়নি
আসেনি ঘুম ভাঙানো প্রভাত।


রুক্ষ বালুচরে বৃষ্টির কামনা
করছে অসহায় এক কবি,
পূর্ণ করতে মনের বাসনা
আঁকতে গিয়ে নতুন ছবি।
আসবে কি কেউ, রুক্ষ চরে
বর্ষায় ভরা প্লাবন নিয়ে,
থাকবে কি কেউ, অচেনা নীড়ে
কবির আপন মানুষ হয়ে।