[email protected]@@


মনটা আমার চন্দ্র হারা রাতি,
তাইতো থাকে বেঘোর জ্বালায় মাতি।
জোনাক তবু আঁকলে ক্ষণিক রেখা,
পড়তে সে যায় স্মৃতির পাতায় লেখা।


ঘুম পাড়ানীর গান শুনে তাই আশায় উঠে মেতে,
মা’র কোলে তার মানিক সেজে আদর সোহাগ পেতে।
রাখাল ছেলে ডাক দিলে চায় গামছা বেঁধে মুড়ি,
ঘাট বা মাঠে লাটাই হাতে ছুটতে নিয়ে ঘুড়ি।
দেয় যদি বা বিলের পানি একটু উছল হানা,
পলই হাতে যায় ছুটে সে তুচ্ছ করে মানা।
খোদ গহীনের স্নিগ্ধ আবেশ ধুমসে উঠে খেলে,
বগল চেপে বই নিয়ে সে কলেজ পানে গেলে।
আর গেলে শেষ প্রেম সায়রের বক্ষে বেয়ে তরী,
অচল ভেবে দেয় ফেলে তার শুদ্ধ শ্বাসের ঘড়ি।


চায় না সে আর ফিরতে ঘরে,
ফুল পেতে চায় ফুলের দরে,
ঝরলে তাতে কলি?
ফের তবু সে গর্বে সাজে
ছুরতজানের থলি!!


[email protected]@@
পাঁচুপুর, আত্রাই, নওগাঁ।
২৬/০৮/২০২১ইং।



@বোরহানুল ইসলাম লিটন