রাত্রি আটটা বাজতে,
আর মিনিট দশ বাকি।
বাসটা আসবে, আসবে করে,
রোজকার মত করছে দেরী।
অন্ধকার রাস্তায়, হঠাৎ,
হলুদ চকিত 'ধারা',
চোখ ওঠে ঝলসে,
হৃদয়ে ফাগুনের ঝড়, 'রাধা'।
ওগো কৃষ্ণচূড়া?
দাঁড়িয়ে থেকো না আর,
রজনী, উথলে উঠেছে দুলে,
ভালোবাসা, কে আটকায়?
আটকায় ফাগুন, আটকায়,
হাতে মোহন বাঁশির বদলে, বইয়ের ব্যাগ।
চোখে, মধুর রেশ ছড়ানোর বদলে,
তৃষ্ণা ছড়ায় মিলনের!
তারা যে বাঁধা দেয়, ফাগুন।
কুলিয়ে উঠতে পারিনি তো,
সে হলুদ চঞ্চলতা,
যায় পথ পেরিয়ে, চলে'গো।
পিপাসিত মন, কেঁপে ওঠে।
এবারে, তবে ফাগুনের ঝড় নেমে আসুক।
এ ধরনী, হয়ে যাক,তছনছ।
কি আর হবে,পথ হারা অন্ধ পথিকের?
রোজকার মত,বাস আসে।
ব্রেক কষে দিয়েছে, পা'দুটোকে।
যুগ, যুগ ধরে, দাঁড়িয়ে থাকলে, পাব রাধাকে?
হঠাৎ, শ্রাবনের ধারাপাত,
নেমে আসে, অকালে।