সেই যে পলক খুলেছিলাম
আজও চেয়ে আছি
মুগ্ধতার আবেশে আজও
তোমায় দেখি ।
ঐ যে ওপাড়ে তোমার
ঘাটে লেগেছে তরী
উদাস মাঝির গানে
আমি একা ভেসে চলি!


আমি কান পেতে আছি
হাজার বছর ব্যাপি
শুনি জলের কলধ্বনি
চেয়ে দেখি ঐ মুগ্ধ হাওর
থই থই জোছনার চাহনি ।


আষাঢ়ে তোমার একি জলধারা
ভেসে চলেছে তায়
পালের নৌকোখানি ।


কার্তিকে ফসলের হিন্দোল  
হেমন্ত পড়েছে গোধুলি রঙ শাড়ি
ফাগুণে তার পলাশ পলাশ মন
আষাঢ়ের তার অকুল ভাসা জল।


আমি ভাসি কেবল ভাসি
কখন ও সর্ষের রঙ মাখি
কখনও সবুজ মায়ায়
স্বপ্নের জাল বুনি ।
বকের পাখায় উড়ে
জলের মাছ ধরি ।


এমন মায়াবী বদন খানি
তোমার রঙ তুলিতে
তোমারই ছবি আঁকি ,
তোমায় কত ভালবাসি
তার সীমানা ন' জানি ।।