অনেকটা পথ পেরিয়ে
সেইসব পদধ্বনি পদচিহ্ন
এক নিশ্চিত গন্তব্যে মিলিয়ে যায়।


নিজস্ব শরীর লাশকাটা ঘরে
পরত দরপরত খুলবে ঘাত প্রতিঘাতের শব্দ।


ভাটার টানে একলা বসে প্রবুদ্ধ পৃথিবী..
মাতৃগর্ভের কোমল অন্ধকার থেকে
কোন অশ্বারোহী নীলের নীলিমা ছুঁয়ে যাবে।


হোমানলে অথবা বৃষ্টির ধারায়
এ দেশেও গাওয়া হয়েছিল আহ্বান গান।


জলতল থমথমে তরঙ্গ সময়
পাপ ও পুণ্যের ভিতকে নাড়িয়ে
এক পাগল হাওয়ার ঘূর্ণি।