যুদ্ধ মানে বিভৎস বিভীষিকা
মৃত্যুর দাবানল আগ্নেয় শিখা !
জঘন্য অপরাধ ইতিহাসে লেখা
বিশ্বে পুনঃপুনঃ যায় যে দেখা !
একে অপরের স্বার্থ লাগি
সাম্রাজ্যের তীব্র ভোগী
তারা নির্মম যুদ্ধের ভাগী
জড়ায় সারা দেশ অঞ্চল
ছড়িয়ে একাকার যুদ্ধ দাবানল !
যুদ্ধ মানে উন্মুক্ত উন্মাদ
যুদ্ধ বাঁধায় মূঢ় লম্পট !
যুদ্ধ নাশে জীবন সম্পদ ,
যুদ্ধ মনের নীচ প্রবৃত্তি
যুদ্ধ সমাজের ক্রূর বিকৃতি ৷
যুদ্ধ গড়ে স্তুপ কঙ্কালে
কদর্য লাঞ্ছনা জোটে কপালে
আবাল বৃদ্ধ বনিতা
তারা হয় নির্যাতিতা !
যুদ্ধের লেলিহান অগ্নি শিখা
বিশ্ব যুদ্ধে হয়েছে শিক্ষা ৷
বিশ্বমনে আছে যে লেখা
তবুও মানুষের হয়নি শেখা
এটমবোমের সে বিভীষিকা  
জাপানে দেখায় আমেরিকা
দৃশ্য তার যায় না আঁকা !
কী নিদারুণ ওঠে ক্রন্দন
অসাধ্য যুদ্ধের ব্যাখ্যা বর্ণন
কান্নায় ভাসে জনে জনে
বুক ফাটা রব ভরে জাপানে !
মহাপরিণতি আনে এ যুদ্ধ
নিঃশেষ হয় সর্ব শুদ্ধ !
যুদ্ধ আনে বিধ্বংস প্রলয়
সভ্যতা জন-ধন, ধরণী লয় !
যুদ্ধে যত না মানব ক্ষয়
মহাদুর্যোগে প্রকৃতির বুকে
মানব মরেনি কোন দুর্বিপাকে
বিশ্বযুদ্ধে যা ঘটে ধরায় ;
ভয়াবহ দৃশ্যে ভরে যায় !
যুদ্ধ মানে জীব হানীর উপায়
সর্বনাশ সন্দেশ যুদ্ধ জানায় !
তবু কেন যুদ্ধ হয় ?
যুদ্ধ শুধু এখন নয়
আদিতে ছিল এখনো হয় ৷
যুদ্ধ কেন হবে ?
নিদারুণ বিভৎস দৃশ্য ভবে
মানুষ শিখিবে কবে ?


তবুও মানুষ শেখে না
আপন ভাল বোঝে না
মানুষ যখন মানুষ হবে
যুদ্ধ বন্ধ হবে ভবে
মিথ্যা দম্ভ শক্তি
এছাড়া নেই যুক্তি ;
এক পক্ষ চাইলে শান্তি
অপর পক্ষ বাড়ায় ভ্রান্তি
শান্ত পক্ষের নিস্তার নাই
অপর পক্ষের যে যুদ্ধ চাই ?
এও এক প্রকার রোগ
শান্তি কামীর হয় দুর্যোগ ,
যুদ্ধ চায় কারা
অমানুষ হয় যারা
তারা আবার যুদ্ধবাজ
যুদ্ধ বাঁধিয়ে করে রাজ !
প্রজাকে সামলাতে
ফেলে সব ঝামেলাতে ৷
সীমা ঠেলা-ঠেলি
যুদ্ধের আগুন জ্বালি
সীমা বাড়ায়-
যারা লড়ে আসে ভাড়ায় ৷
সব দেশ যে যুদ্ধ চায়
এমনটা কখনো নয়
অনেকে চায় যুদ্ধ না হয় ৷
যুদ্ধে বাড়ে না আত্মসম্মান
হয় না মহান তার অভিমান,
যুদ্ধবাজের নিছক শৌর্য
নিস্ফল যায় তাদের বীর্য
উদয়ের মূলে কুৎসিত বিচার
সর্বস্তরে করে সংহার৷
কত দুহিতা পতি ছাড়া
বেদনা জলে নয়ণ ভরা !
মৃত্যু কোলে ঢোলে মুমূর্ষুরা
পুড়ে ছাই-সব কিছু হরণ !
নির্মম হয় সবার মরণ ৷


যারা যুদ্ধবাজ
নাই লাজ নাই কাজ,
তারা মজে যুদ্ধ সাজে
ছড়িয়ে বেড়ায় বিশ্ব মাঝে
এক ছত্র রাজ !
উদাহরণ অনেক আছে
বিনা কারণে ডংকা বাজে
বাজায় মাদল তুরি-ভেরি
ধ্বংস লীলায় সয় না দেরী ৷
বাজায় বেজায় জোরে জোরে
তারা শুধু মনুষ মারে
হত্যা কর্মে মন ভরে না
ধার ধারে না জ্বালা যন্ত্রণা ৷
করো আক্রমন বাড়ো আগে
সাজ সরমজাম যতো লাগে
বম বিমান সবই পাবে
তবেই তো যুদ্ধে জয়ী হবে ?


যুদ্ধের পর যুদ্ধ জিতে
প্রমাণিত হয় ভাগ্য মিথ্যে ,
যদিও হয় ওদের দেশ
পরিণাম ক্ষতির অশেষ !
যুদ্ধ তারা করবেই
মারতে যেয়ে মরবেই ৷
তারা জগতে যুদ্ধ দাবানলে
নির্মম আগুন জ্বালে ,
ধ্বংস করে অগণিত প্রাণ
ইচ্ছে হওয়া বিশ্বে মহান ;
নরমুণ্ড পদ তলে মাড়িয়ে
বিজয় পতাকা উড়িয়ে
ওঠে বারুদের পাহাড়ে
বিশ্বে ভরায় হাহাকারে
দম্ভ ভরে জোরদার
শাসন করে এরাই আবার !


মাতৃভূমি রক্ষা করিতে
দিয়েছে যারা জান
তাঁরা অক্ষয় অমর
পবিত্র তাঁদের প্রাণ ;
তাঁরা নমস্য চির শান্তিকামী
কখনো চায় না তাঁরা
একে অপরের জমা-জমি,
তাঁরা লড়ে না তাড়ায়
কাজ করে না ভাড়ায় ৷
সদিচ্ছায় দেশপ্রেমে
জীবন দানে মহান কর্মে,
তাঁরাই মানুষ তারাই ধন্য
তাঁরাই মহান অমর বরেণ্য
নির্মল তাঁদের মন-
তঁদের তরে শত কোটি নমন ৷


(ইং-১৬-০৯-২0১৫-বুধবার)
আমার অন্য কবিতা দেখুন( গুগলে jiggasa.in