মানুষ পুতের শীতের সময় কতো শীতের পোশাক
ভূতের বেলায় একটিও নয় কেমন আজব হিসাব !  
আবার বলে শীতটা নাকি কামড়টা দেয় হাড়ে
মাংসে থাকে চর্বি কিছু সেই তো শীতকে মারে ।
মানুষ পুতের হাড়ের ওপর মাংস প্রলেপ থাকে
তার ওপরে চর্বি দিয়ে শীতকে চেপে রাখে
তবু তো সে গায়ের ওপর পোশাক খালি চড়ায়
সেই মানুষই নিজের দয়ার করে বেড়ায় বড়াই ।  


কিন্তু ভাবো ভূতের পুতের হাড়টুকু তো সম্বল
চিতাতে বা মাটির গোরে মাংস ধুয়ে সব জল
তবু শীতে ন্যাংটো ঘোরে সুতাও জোটে নাকো
তোমরা যে সব মানুষগুলো শরীর ঢেকে রাখো !
একটু দয়া করো ভূতে তোমারই বংশজ  
তাঁদের জন্য করো কিছু তোমারই অগ্রজ।
উলের চাদর ও সোয়েটার দাও গো ভূতের পোনায়
বিশ্বাসে যে মিলে বস্তু তর্কে আজব শোনায় l