জুয়েল সাদত


সময় এখন দুঃ সময়
হোম কোয়েরাইন্টেনে টিন এজ মনটা হাঁপাচ্ছে ।
অক্সিজেনের ব্যাগের শেষটায় যতটুকু তরল থাকে,
তা পাইপের মধ্যে প্রবাহিত না হবার কষ্টে পুড়ায় মন


২৪ ঘন্টায় দিন, মনে হচ্ছে ৩৬ ঘন্টায় আটকানো ;
জীবনের সব ভুলগুলো, স্পাম ফ্লোল্ডার থেকে দৃশ্যমান,
মাপ করে দিও তিথি তানহা,অনিতা,প্রমা আমায় ।
আমি কিন্তু সব সময় সিরিয়াসই ছিলাম,
তোমরাই লিপিয়ারের মত দৃশ্যমান হলে অসময়ে ।


হোম কোয়ারান্টাইনে আজ আমি একজন সশ্রম কারাবন্দী
আমি কিন্তু, বাসন ক্লীন,বিছানা করা,ফ্রীজ ক্রীন করতে  শিখেছি।
জান কল্পনা, এই কাজগুলো একটি বোর্ড  মিটিং থেকেও কঠিন
যখন লেবার স্ট্রাইকে যায়, তা হ্যান্ডল করা যতটা সহজ,
এর চেয়ে কঠিন বাসার তিনটা বিছানা করা,
আমি হোম কোয়ারান্টাইনে জীবনের হিসাবের খাতায় ঘষামাজা করছি, হাল খাতার মত


আমি আবার ত্রিশ সেকেন্ড নয়, পুরো  তিন মিনিট হাত ধুচ্ছি।  কিন্তু ভেবে পাচ্চি না ময়লা বা ভাইরাস তো আমার হাতে নয়, সেটা আমার মনেই।


আমি গুনে গুনে চৌদ্দ  দিনেই শুধরে নেব, আগাছায় ভরা আমার জীবন।


আমি দুঃসময়টাকেই সুসময়ে রুপান্তরের পথে হাঁটছি,


জান কল্পনা, করোনা যাদের মেরেছে, আমিও তাদের  দলে।
আমি আমার ভাইরাসে পুরো জীবনটাই পাল্টে দিলাম।


জুয়েল সাদত ( ফ্লোরিডা )
[email protected]