নাগরিক ঈশ্বর
   ____ শান্ত চৌধুরী


এই নগরে ঈশ্বর নেই !
ঈশ্বরের ছায়া মানব পিতা
ভুলের উপর দাঁড়িয়ে আছে
অধিকার নামের প্রহসন।


বিলাসিতা, উৎসব স্বপ্নের মতো
পূর্ণতার অন্তপুরে
এই নগরে আছে যান্ত্রিক
আর কংক্রিটের নগর পিতা।


নাগরিক তুমি কে?
তোমার পরিচয় কি?
তুমি জলে ডুবে মরো
তুমি আগুনে পুড়ো
আমার তাতে কি!


অভাব অনটন
আমার নিত্য সঙ্গী
বিলাসিতা আমর স্বপ্ন।
কথিত স্বপ্নবাজ অন্ধকারে
ডুবে যায় গুপ্ত চরের বালির মতো।


কেউ বেঁচে থাকলো কি থাকলোনা!
আমার চাই সম্পদ,
আমার চাই অট্টালিকা, প্রসাদ,
নারীর উষ্ণ শরীর
দু’পেয়ালা উস্কি মাদক
জমকালো উৎসব মুখোর সন্ধ্যা।


নাগরিক তুমি কে ?
তোমার জন্মসূত্র কি?
তোমার জন্মের বিলাসীতা স্বপ্নে দেখ
তুমি শ্রমিক, তোমার যোগ্যতা শ্রম
বিনিময়ে খেয়ে পড়ে বেঁচে থাকো।


আমার স্বপ্নের যাত্রা অনেক বড়
ইউরোপ, আমেরিকায় দ্বিতীয় নাগরিক
প্রেসিডন্ট প্রসাদে চোখ।


তুমি কেন নাগরিক অধিকার চাও?
তুমি বেঁচে থাকো, না হয় মরো।
আমার প্রচুর্য চাই'ই চাই
আমি ঈশ্বর, আমি পিতা।


তুমি শুধু স্বপ্নের মাঝে বাঁচো,
আর আমার অন্তরালে
ভোগ বিলাসিতার দর্শক হয়ে
যাযাবর অথবা ফেরারী।