ছন্দঃ মাত্রাবৃত্ত-৫


একদা নদীর সাথে দেখা।
নদীকে শুধাইলাম, ওগো মায়াবী নদী;
বড়ই তৃষ্ণার্ত, জল কি দেবে..?
নদী বলল, ভাটায় তাই ঘোলা এ জল।
বরং জোয়ার এলে খেও, সাধ্যমত অনর্গল।
এবার শুধাইলাম, তপ্ত তন।
করিতে চাই একটু স্নাণ,
দাওনা ভিজিয়ে মোর তনূ ও মন।
নদী বলিল, হ্রস্ব আমি অতীব লঘু ব্যপ্ত
এবেলা শোন, হবেনা তুমি পরিতৃপ্ত।
আমি যবে ভাসিব জোয়ারে
মিলিত হব সাগরে-মহাসাগরে,
তুমি তখন এস হে সখা
এস তেষ্টামাখা শরীরে।


এখন নদী অনেক দীর্ঘ, দীর্ঘ পরিসরে
জোয়ারে ভেসে বেড়ায় সাগরে-মহাসাগরে,
তার বুকেতে বড় বড় জাহাজ চলাচল করে।
নদী তার সে কথা রাখেনি,
আমার আর গোসল করা হয়নি,
অমোঘ তৃষ্ণাও মিটেনি।