আজি এই শেষ বসন্তে
তোমারি বার্তা শুনিতে;
ছুটিয়া আসিয়াছি দিগন্তের নদী'র দ্বারে
খুঁজিয়াছি কথা সেকালের অনন্ত পাড়ে;
তুমি অপহরণ করিয়াছ হৃদয়
তাই তোমারে আজো মনে হয়।
ভাবিয়া ব্যাকুল; সহৃদয় সঁপিলাম কারে।


মোর যৌবন কালের প্রিয়
বাতাসে কান পেতে দিয়ো;
শেষ বসন্তে শেষ নিশ্বাস শুনিতে যদি চাও
মোর বর্জিত যৌবনে দু'হাত বাড়াইয়া দাও।
এখনো সে প্রেম অক্ষত আছে
যে প্রেম তুমি ভাবিয়াছ মিছে;
দু'বাহু বাড়াইয়া সে প্রেম একালে তুমি নাও।


একদিন তুমি বলিয়াছ মোরে
আমার বাহুডোর আঁকড়ে ধরে—
'তুমি কি মোরে ছাড়িয়া যাইবে কোনদিন দূরে
মুক্ত হতে, যুক্ত প্রেম ছাড়িয়া মুক্ত ছাউনির নীড়ে?'
সে কথা ভাবিয়া মুখে হাসি ফোটে
তুমি গিয়াছ প্রেমের শিখল কেঁটে!
মিলেছ কোন দূর মানুষের বুকের হৃদয় ঘিরে।


আমি আজো শেষ বসন্তে
অপেক্ষাই নিজের অজান্তে;
প্রেমের টানে তুমি আসিবে ফিরে বসন্তের বার্তায়
হয়ত সেদিনের প্রেমের বাণীর তীক্ষ্ণ বুকের ব্যথায়।
কত বসন্ত মোর কাটিয়া গেলো
প্রকৃতির সুখ দেহ জুড়িয়া নিলো;
তবু আকুল হৃদয় মরিয়া বাঁচে সেদিনের মিষ্টি কথায়।