মানব জাতি আজ ধ্বংসের মুখে। ভুলুণ্ঠিত হচ্ছে জাতি সত্তা। ছারখার হয়ে যাচ্ছে সমগ্র বিশ্ব। কখনো আগুনের দ্বগ্ধিত লাভায় দাউ দাউ করে জ্বলছে ধরণী, কখনো বিধ্বংসী বোমার আঘাতে ছিন্ন ভিন্ন হচ্ছে দেহের মাংস। বাতাসে উড়ছে রক্তের ফোটা। ঝাঁঝরা হচ্ছে পাঁজরের হাড় বিনাশী বুলেটের প্রলয় ঝড়ে। তপ্ত পৃথিবী আজ ধ্বংসের খেলায় মত্ত। কখনো আবার সাদা পোশাকে কলঙ্ক মাখায় ধর্ষক মেতে উঠছে নোংরা খেলায়। ওরা রক্ত পিপাসু, ওরা রক্তের নেশায় আসক্ত। ওরা হায়েনা বেসে ঘুরছে পথে পথে। মৃত্যুর ফাঁদ পেতেছে ওরা দিকে দিকে। ওরা অন্ধকার, ওরা কুৎসিত ধিক ওদের ধিক!!! মানবের মুক্তির পথ কোথায়? আর কত সইতে হবে হিংস্রতা? আর কত ঝরবে নিরীহ মানব রক্ত? আর কত চলবে ধ্বংস ধ্বংস খেলা? ওরা নীরব ঘাতক ওদের সত্য বলে কি কিছু নাই?


হে আমার ঈশ্বর তোমার পদ তলে আমার এই নিবেদন ঠাঁই দিইও নিরিহ আত্মাদের তোমার
অনন্ত আবাসে।