//জন্মদিন উদযাপন অন্য নামে//


তিন চার দিন ধরেই শুনছি
জন্মদিনটি আসছে এগিয়ে
আজ সেই দিনে পৌঁছে গিয়েই
আমার চেতনা আরো ভাবিয়েছে।


আজ তো আমার জন্ম হয়নি
আজ জন্মদিন কেন চিহ্নিত!
এর ব্যাখ্যার প্রয়োজন নেই
সমস্ত মন জ্ঞানে অবহিত।


সেদিন এবং আজকের দিন
এই দুই দিনে কী কী আছে মিল!
একটি বিশেষ মিল আছে বলে
মেনে নিই এই দিন স্বপ্নিল।


শুধু এক মিল, সেটাই তারিখ
যে তারিখ নিশ্চিত অনন্য
অনন্য দিনে যে ঘটনা ঘটে
মানতে হবেই তাও অনন্য।


জন্মদিন তো সেইদিন ছিল
যেদিন মায়ের কোল ভরেছিল
মা'কে হারিয়েছি, সেদিন অতীত
আজ সেই দিন কী ভাবে যে এলো!


বলি কি না বলো আমরা সকলে
বিবাহ তারিখ এক বার্ষিকী!
জন্ম তারিখ কেন যে হবে না
অন্য বছরে এক বার্ষিকী!


অতীত স্মরণ করে থাকে মন
ছোট এই কাজ করাই উচিৎ
নাও যদি করি, হবেই স্মরণ
অতীত ভুললে, নড়ে যাবে ভিত।


বছরের বারো মাসে এত দিন
দিনগুলো পায় কত গুরুত্ব!
যে দিনে ঘটবে বিশেষ ঘটনা
সেই দিন হবে গুরুত্বে মত্ত।


জন্ম তারিখ, বিবাহ তারিখ
গুরুত্বপূর্ণ, তাই মনে রাখি
সেদিনের হয়ে গেলে আগমণ
বেশী আনন্দ নিয়ে মাখামাখি।


বিশেষ তারিখ এলে উদযাপন
উদযাপন হয় কোনো এক নামে
বিবাহ তারিখ হয় বার্ষিকী
জন্ম তারিখ কেন আদি নামে!


উদযাপন হোক, সেটাই মূখ্য
নাম নিয়ে নেই কোনো বাধ্যতা
বাধ্যতা নেই কী আমি ভাবব
তাই তো প্রকাশ মনে দেখা কথা।


সুবীর সেনগুপ্ত